ব্রেকিং নিউজ

বোরকা হিজাব নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হয়রানী অসাংবিধানিক : হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক :“বোরকা ও হিজাব পরিধানের কারনে বাংলাদেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মুসলিম নারী শিক্ষার্থীদের সাথে হয়রানিমূলক আচরণকে কেন অসাংবিধানিক ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না” তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন মহামান্য হাইকোর্ট। একই সাথে এসব ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না রুলে তাও জানাতে বলা হয়েছে।

দৈনিক আল ইহসান ও মাসিক আল বাইয়্যিনাত পত্রিকার সম্পাদক মুহম্মদ মাহবুব আলম ও মোহাম্মদপুর তাজ জামে মসজিদের খতিব আবুল খায়ের মুহম্মদ আজিজুল্লাহর পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মুহম্মদ আহাসান ও শেখ ওমর শরীফের দায়ের করা রিটের প্রাথমিক শুনানি শেষে বিচারপতি মঈনুল ইসলাম চৌধুরীরর নেতৃত্বাধীন হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ দুপুরে এ রুল জারি করেন।

শিক্ষা সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত : গত ১৭ জানুয়ারি হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় দৈনিক আল ইহসান ও মাসিক আল বাইয়্যিনাত পত্রিকার সম্পাদক আল্লামা মুহম্মদ মাহবুব আলম ও মোহাম্মদপুরের তাজ জামে মসজিদের খতিব আল্লামা আবুল খায়ের মুহম্মদ আজিজুল্লাহর পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মুহম্মদ আহাসান ও শেখ ওমর শরীফ রিটটি দায়ের করেন।

রিটে দেশের স্কুলগুলোতে স্কুল ইউনিফর্মের ওপর বোরকা পরিধানে ছাত্রীদের বাধা না দেওয়ার জন্য কার্যকর ব্যবস্থা এবং ইতিমধ্যে বিভিন্ন স্কুলে ছাত্রীদেরকে বোরকা পরিধানে বাধাদানকারী স্কুল কর্তৃপক্ষ ও প্রধান শিক্ষকদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা কেন গ্রহণ করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারির আর্জি জানানো হয়।

রিটে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে বিবাদী করা হয়। পরে আইনজীবী শেখ ওমর শরীফ বলেন, ছাত্রীরা বোরকা পরাকে কেন্দ্র করে বিভিন্নভাবে নিগ্রহের শিকার হয়।

এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে আমরা গত বছরের ডিসেম্বরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে একটি আইনি নোটিশ পাঠাই। কিন্তু সে নোটিশের কোনো জবাব না পাওয়ায় আমরা হাইকোর্টে রিট দায়ের করি।

রিট আবেদনে উল্লেখ করা হয়, দেশের বিভিন্ন স্কুলে বোরকা পরিধানকারী ছাত্রীরা নিগ্রহের শিকার হওয়ায় তারা সংক্ষুব্ধ হয়েছেন। সম্প্রতি চট্টগ্রাম মহানগরীর পতেঙ্গা থানার মাইজপাড়া মাহমুদুন্নবী চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী বোরকা পরায় তাকে নিয়ে অশ্লীল মন্তব্য করে তাকে শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করতে দেননি ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এম এ কাশেম।

ওই ঘটনার পরের দিন সেই ছাত্রীর মা বোরকা পরার অনুমতির জন্য গেলে প্রধান শিক্ষক মারমুখী আচরণ করে তাকেও বের করে দেন। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভিডিও ব্যাপক আলোচনার জন্ম দেয়। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন স্কুলে সংঘটিত একই ধরনের আরো কিছু ঘটনা বিভিন্ন সময়ে সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়।

Related posts