ব্রেকিং নিউজ

ভারতে আরো বেড়েছে দাবদাহ, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৫০

আন্তার্জাতিক ডেস্ক : ভারতের বিহারে তীব্র দাবদাহে গত ৭২ ঘণ্টায় আরো ৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৫০ জনে দাঁড়িয়েছে। তীব্র গরমে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে দুই শতাধিক মানুষ। এ অবস্থায় বিহারের তিন জেলায় ১৪৪ ধারা জারির পাশাপাশি বন্ধ রাখা হয়েছে স্কুল-কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

বর্ষা এলেও ভারতের উত্তরের রাজ্যগুলোতে দেখা নেই বৃষ্টির। তীব্র গরমে নাভিশ্বাস জনজীবনে। এর মধ্যে বিহারের আবহাওয়া পরিস্থিতির দিন দিন অবনতি হচ্ছে। হিট স্ট্রোকসহ নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা এরই মধ্যে আড়াই শ’ ছাড়িয়েছে।

স্থানীয় মানুষরা বলেন, প্রচণ্ড গরম থেকে বাঁচতে মুখ বেঁধে চলাফেরা করছি। পানির সংকট দেখা দিয়েছে সব থেকে বেশি। এতো গরম আগে দেখিনি।

তীব্র দাবদাহে হাসপাতালে ভর্তি বহু মানুষ। চিকিৎসা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের।

ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন বলেছে, প্রথম দিন থেকে আমাদের টিম কাজ করছে। আমি নিজেও সেখানে গিয়েছি। এছাড়া মারা যাওয়াদের পরিবার প্রতি ৪ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করা হয়েছে।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিহারের গয়ার পাশাপাশি নালন্দা এবং সীতামারহি জেলায় ১৪৪ ধারা জারি রয়েছে। সকাল ১১টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত শ্রমিকদের কাজ করার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন। দিনের বেলায় বাজার-হাট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। শুকিয়ে গেছে নদ-নদীর পানি। কৃষি কাজে দেখা দিয়েছে তীব্র পানি সংকট। ১৯ জুন খোলার কথা থাকলেও স্কুল-কলেজ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মের ছুটি ২৪ জুন পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে তাপমাত্রার অস্বাভাবিক বৃদ্ধিতে মরুকরণের শিকার ভারতের উত্তরাঞ্চল। শুধু বিহার নয়, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, চেন্নাইয়েও তীব্র দাবদাহ বিরাজ করছে। টানা বৃষ্টি না হওয়া পর্যন্ত আগামী কয়েকদিন এমন পরিস্থিতি বজায় থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর।

Related posts