ব্রেকিং নিউজ

মুসলিমবিদ্বেষী এখন ভারপ্রাপ্ত ইমিগ্রেশন পরিচালক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইমিগ্রেশন সার্ভিসের নতুন ভারপ্রাপ্ত পরিচালক হিসেবে ভার্জিনিয়ার সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল কেন কুচিনেলির নিয়োগ ট্রাম্পের বৈধ ইমিগ্র্যান্টকে নষ্ট করার এক মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ, বৈধ ইমিগ্রেশন যদি বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে অবৈধ ইমিগ্রেশন বেড়ে যাবে।

অ্যাটর্নি রজার সালগেসি বলেছে, কুচিনেলির মনোনয়নের মাধ্যমে ডোনাল্ড ট্রাম্প তার বৈধ ইমিগ্রেশন বন্ধের পথে পা বাড়িয়েছে। সে জানিয়েছে , কুচিনেলি ইমিগ্রেশন বিভাগ পরিচালনার জন্য আসেনি, এসেছে আমেরিকার বৈধ ইমিগ্রেশন সিস্টেমকে ধ্বংস করতে।

কুচিনেলি কে? বস্তুত কুচিনেলি একজন মুসলিমবিদ্বেষী কর্মকর্তা। মুসলমানদের বিরুদ্ধে বিবৃতি দেওয়ার তার ইতিহাস রয়েছে। কুচিনেলি ইমিগ্রেশনকে ‘পোকা নিয়ন্ত্রণের’ সাথে তুলনা করেছে।

স্টেট সিনেটর হিসেবে কুচিনেলি কোনো কাগজপত্রবিহীন ইমিগ্র্যান্টকে সম্পূর্ণভাবে কোনো কলেজে যাওয়ার বিরুদ্ধে আনীত বিলকে সমর্থন করে। সে এক বিল এনেছেন, যেখানে সব কর্মচারীর ইংরেজিতে কথা বলার প্রয়োজনের কথা বলা হয়েছে। কুচিনেলি ডোনাল্ড ট্রাম্পের বৈধ ইমিগ্রেশন ভেঙে দেওয়ার লক্ষ্যে কাজকে সমর্থন করবে।

বর্ডার জার : এদিকে ট্রাম্প প্রশাসন সাবেক ইমিগ্রেশন অফিশিয়াল টম হোসেনকে ‘বর্ডার জার’ হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। ট্রাম্প বলেছে, টম হোসেন হোয়াইট হাউস থেকে কাজ করবে।
তাছাড়া জন জাডরোজনি নামে একজনকে কুচিনেলির অধীনে কাজ  করার জন্য নিয়োগ দেওয়ার কথা বলেছে ট্রাম্প। জন বর্তমানে হোয়াইট হাউসে স্টিফেন মিলারের সাথে কাজ করছে।

Related posts