ব্রেকিং নিউজ

১৩ বছরে মাত্র ৪ বিদেশি শিক্ষার্থী কুবিতে

নিউজ ডেস্ক :প্রতিষ্ঠার একযুগ পেরিয়ে গেলেও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে গড়ে ওঠেনি বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা ও অবকাঠামো। ফলে এ সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ থেকে ১৩ বছরে মাত্র ৪ জন বিদেশি শিক্ষার্থী শিক্ষা কার্যক্রম সম্পন্ন করেছেন।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোশাররফ হোসেন জানান, ২০০৭ সালে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষে ৩ জন এবং ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষে ১ জন বিদেশি শিক্ষার্থী এখানে ভর্তি হন। এরপর গত ছয় বছরে আর কোনো বিদেশি শিক্ষার্থী এখানে ভর্তি হননি।
এজন্য বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য প্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিধা এবং প্রচার-প্রচারণার অভাবকেই দায়ী করছেন বিশ্ববিদ্যালয়টিতে পড়ুয়া সাধারণ ও বিদেশি শিক্ষার্থীরা।

ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন (আইসিটি) বিভাগে অধ্যয়নরত নেপালি শিক্ষার্থী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর জাগো নিউজকে বলেন, বাংলাদেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ে বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তি ও প্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা থাকলেও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের চিত্র ভিন্ন।এখানে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ন্যূনতম আবাসনের ব্যবস্থাও নেই। তাই বাধ্য হয়ে আমাদেরকে হলে উঠতে রাজনৈতিক আশ্রয়ে যেতে হয়। এছাড়া সেশনজটও বিদেশি শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়টি থেকে বিমুখ করছে বলে তিনি জানান।

এদিকে বিদেশি শিক্ষার্থীদের কোনো বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে জানার অন্যতম মাধ্যম ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট হলেও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট তথ্যবহুল এবং হালনাগাদ নয় বলে অভিযোগ করেছেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতার শিক্ষার্থী আলাউদ্দিন আল আজাদ।

বিদেশি শিক্ষার্থী না আসার কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. আবু তাহের জানান, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ই বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্ধারণ করে দেয়। সুতরাং এ ক্ষেত্রে আমাদের কিছু করার নেই। তবে বিদেশি শিক্ষার্থীদের আবাসনসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধার অপ্রতুলতার কথাও স্বীকার করেন তিনি।

এ বিষয়ে উপাচার্য ড. এমরান কবীর চৌধুরী বলেন, গত বছর একনেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য যে বৃহত্তর উন্নয়ন বাজেট অনুমোদন দেয়া হয়েছে তাতে বিদেশি শিক্ষার্থীদের আবাসনে একটি আন্তর্জাতিক কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে। পাশাপাশি এ প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনা ও গবেষণার মানেরও উন্নতি হবে। যা বিদেশি শিক্ষার্থীদের এ বিশ্ববিদ্যালয়ের আসতে আকৃষ্ট করবে।

Spread the love

Related posts