প্রধানমন্ত্রী হতে চান রাজকুমারী, বিপক্ষে থাই রাজা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:প্রধানমন্ত্রী হতে চান থাইল্যান্ডের রাজকুমারী উবোলত্রানা মাহিদল। দেশটির আসন্ন নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন তিনি। তবে বড় বোনের এমন সিদ্ধান্তে অখুশি থাইল্যান্ডের রাজা মাহা ভাজিরালংকর্ণ। বোনের প্রধানমন্ত্রীর লড়াইয়ে নামার সিদ্ধান্তকে ‘অনুচিত’ এবং ‘অসাংবিধানিক’ বলে অভিহিত করেছেন তিনি।

জানানো হয়েছে, ৬৭ বছর বয়সী উবোলত্রানা মাহিদল থাইল্যান্ডের বর্তমান রাজার বড় বোন। তাছাড়া দেশটির প্রয়াত রাজা ভূমিবল আদুলিয়াদেজের প্রথম সন্তান তিনি। রাজকুমারী মাহিদল দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার পক্ষে একটি দলের হয়ে নির্বাচন করবেন।
গত শুক্রবার দেশের প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে ব্যতিক্রমী নজির সৃষ্টি করেন রাজকুমারী উবোলত্রানা। থাইল্যান্ডের রাজপরিবারের রাজনীতির বাইরে থাকার প্রথা ভঙ্গ করে তার এমন ঘোষণায় অখুশি হয়েছেন রাজা মাহা ভাজিরালংকর্ণ। কেননা দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য অনুযায়ী থাই রাজপরিবার রাজনীতির বাইরেই থাকে।

বোনের এমন ঘোষনায় ক্ষুব্ধ হয়ে থাই রাজা এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘রাজপরিবারের উচ্চপদস্থ সদস্যের রাজনীতিতে জড়িত হওয়ার ব্যাপারটি মেনে নেয়া যায় না। যেভাবেই হোক না কেন এমন ঘটনা আমাদের দেশের ঐতিহ্য, প্রথা ও সংস্কৃতির সঙ্গে সাংঘর্ষিক। তাই তার এমন কিছু করা ঠিক হয়নি।’

প্রধানমন্ত্রী পদে নিজের প্রার্থিতা ঘোষণা করার পর উবোলত্রানা বলেন, তিনি চেয়েছিলেন একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে তার অধিকার চর্চা করতে। সব থাই নাগরিকের সমৃদ্ধির জন্য তিনি আন্তরিকতা ও দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ হয়ে কাজ করবেন বলে জানান। উল্লেখ্য, আগামী ২৪ মার্চ দেশটির সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

Spread the love

Related posts