ব্রেকিং নিউজ

সুস্থ থাকতে ঘুমানোর আগে পান করুন

নিউজ ডেস্ক:অনেকে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পানি পানের বিষয়টি এড়াতে চায়। কারণ তারা মনে করে রাতে প্রস্রাব করার প্রয়োজন হতে পারে এবং এতে তাদের ঘুমের ব্যাঘাত ঘটতে পারে। কিন্তু তারা জানে না যে বিছানায় যাওয়ার আগে গরম পানি পান করার অভ্যাস করলে তা আসলে স্বাস্থ্য সুবিধা প্রদানের পাশাপাশি ভালো ঘুমেও সাহায্য করতে পারে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা শরীর ভাল রাখতে সবাইকে সকালে খালি পেটে হালকা গরম পানি পানের উপদেশ দেন।ঠাণ্ডা পানির পরিবর্তে এটি পানে শরীরের কার্যকারিতা বেড়ে যায়। তাদের মতে, সকালের মতো রাতে ঘুমানোর আগেও হালকা গরম পানি পান করলে নানা ধরনের স্বাস্থ্য উপকারিতা পাওয়া যায়।

আমরা অনেকেই জানি, স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও সৌন্দর্য চর্চায় সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরপরই এক গ্লাস গরম পানি কতটা উপযোগী। কিন্তু, একইভাবে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগেও এই অভ্যাসটি শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী।

গরম পানির উপকারিতা : রাতে কীভাবে গরম পানি স্বাস্থ্যের উপকার করে?
উদ্বেগ ও বিষণ্ণতার বিরুদ্ধে প্রতিরোধে
অনেক গবেষণায় দেখা গেছে, শরীরে পানির অভাব থাকলে তা মানসিক চাপের মাত্রা এবং বিষণ্নতা বাড়িয়ে দেয়। এটি ঘুম চক্রকে প্রভাবিত করে। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে তা শরীরে পানির স্তর বজায় রাখে এবং মানসিক চাপ দূর করে।

বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে
গরম পানি শরীরের অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা বাড়ায় এবং ঘাম উৎপন্ন করে। ফলে রক্ত সঞ্চালন আরো ভালো হয় এবং শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে শরীরকে বিষক্রিয়া থেকে মুক্তি দেয়। তাই রাতের চমৎকার ঘুমের জন্য বিছানায় যাওয়ার আগে গরম পানি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

হারানো তরল ফিরিয়ে আনে
আমাদের শরীর নিয়মিত ঘাম, প্রস্রাব এবং অন্ত্রের গতি প্রক্রিয়া দ্বারা তরল ব্যবহার করছে এবং হারাচ্ছে। শরীরের অপরিহার্য পদ্ধতিগুলো রাতেও চলতে থাকে। এ জন্য রাতে কাজ করার জন্য পানি আমাদের শরীর থেকে হারিয়ে যাওয়া পানির জায়গা পূরণ করে।
হজমে সাহায্য করে
গরম পানি হজম ক্রিয়ায় অবাঞ্ছিত খাবারকে দ্রবীভূত করে। ফলে হজম ক্রিয়া সুসম্পন্ন হয়। রাতে হজম পদ্ধতি দুর্বল থাকে। এ সময় গরম পানি প্রক্রিয়াটিকে দ্রুত ও মসৃণ করে।

ওজন কমাতে সাহায্য করে
একই কারণে রাতে আমাদের হজম পদ্ধতিটি মসৃণ থাকে না। গরম পানি দ্রুত খাবার ভেঙে ফেলতে সাহায্য করে এবং দ্রুত হজম সম্পন্ন হয়। ফলে দ্রুত ওজন হ্রাস পায়।

সূত্র : এনডিটিভি

Spread the love

Related posts