ব্রেকিং নিউজ

বাংলাদেশ-ভুটান বাণিজ্য সম্পর্ক নতুন মাত্রায় নিতে আগ্রহী

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ ও ভুটান দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্পর্ক নতুন মাত্রায় নিয়ে যেতে আগ্রহী। ঢাকায় সফররত ভংটানের প্রধানমন্ত্রী ডা. লোটে শেরিং আজ সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে দু’দেশের পক্ষ থেকে এ আগ্রহ প্রকাশ করা হয়।

প্রধান তথ্য কর্মকর্তা (পিআইও) মো. জয়নাল আবেদিন বৈঠকের উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যে অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় রয়েছে। এর মধ্যে দু’দেশের মধ্যকার বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্পর্ককে আরো নতুন মাত্রায় নিয়ে যাওয়া যেতে পারে।
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বঙ্গভবনে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ডা. শেরিংকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ভুটানের সঙ্গে দীর্ঘদিনের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে বাংলাদেশ সবসময় গুরুত্ব দেয়।

রাষ্ট্রপতি ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময়ে ভুটানের সাহায্য ও সহযোগিতার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, বাংলাদেশ সবসময় ভুটানকে বিশেষ সম্মানের দৃষ্টিতে দেখে। বাংলাদেশকে স্বীকৃতিদানকারি প্রথম দেশ ভূটান।

রাষ্ট্রপতি ভুটানের সঙ্গেকার সম্পর্ককে অত্যন্ত চমৎকার উল্লেখ করে বলেন, দু’দেশের মধ্যকার বহুমুখি বাণিজ্য সম্পর্ক দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তিনি বলেন, দু’দেশের মধ্যকার স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারক বাস্তবায়িত হলে আগামী দিনগুলোতে বর্তমান সম্পর্ক আরো উচ্চ মাত্রায় পৌছে যাবে।
বৈঠকে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী বর্তমান সরকারের অধিন বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির প্রশংসা করে ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ এই উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে সক্ষম হবে বলে আশা প্রকাশ করেন। তিনি বাংলাদেশে তার দেশের শিক্ষার্থীদের মেডিকেল কলেজে লেখাপড়া করার সুযোগ পাওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন।

সফররত ভুটানের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার সঙ্গে অনুষ্ঠিত তার বৈঠকের উল্লেখ করে বলেন, এই বৈঠকে বিভিন্ন দ্বিপক্ষীয় বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে এবং এই বৈঠকের ফলাফল ভবিষ্যতে একটি মাইলস্টোন হয়ে থাকবে।

রাষ্ট্রপতি বঙ্গভবনে ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে এক নৈশভোজের আয়োজন করেন। অনুষ্ঠানে ভুটানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লেওনপো তানদি দোর্জি, স্বাস্থ্যমন্ত্রী লেওনপো দেচেন ওয়াংমো, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভূটানের রাষ্ট্রদূত সোনাম টবদেন র‌্যাবগে, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন, দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, পররাষ্ট্র সচিব মো. শহিদুল হক, ভুটানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত কিশু রায় চৌধুরী, এবং ভুটান সরকারের পদস্থ কর্মকর্তাগন ও বঙ্গভবনে সংশ্লিষ্ট সচিবগণ উপস্থিত ছিলেন।

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ডা. লোটে ২৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল নিয়ে বাংলাদেশে তিনদিনের সরকারি সফরে শুক্রবার সকালে এখানে এসেছে।

Spread the love

Related posts