আন্তর্জাতিক

বালাকোটে হামলা নিয়ে ভারতের এ কেমন মিথ্যাচার!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বালাকোটে ভারতীয় বিমানবাহিনীর হামলায় কতজন মারা গিয়েছিল, তা নিয়ে সাবেক পাকিস্তানি কূটনীতিক আগা হিলারির একটি বক্তব্য প্রকাশ্যে আসে গত সপ্তাহে। যেখানে তাকে বলতে শোনা যায়, বালাকোট হামলায় ৩০০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

একটি সংবাদ সংস্থার খবরের ভিত্তিতে আনন্দবাজার ডিজিটাল-সহ সর্বভারতীয় বহু সংবাদমাধ্যমে সেই খবর প্রকাশিত হয়। কিন্তু সোমবার খবরের সত্যতা যাচাইকারী একটি ওয়েবসাইটে জানায়, যে ভিডিওর উপর ভিত্তি করে ওই খবর করা হয়েছে, সেটি বিকৃত করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, ভারত শুরু থেকেই দাবি করে আসছিল যে ২০১৯ সালের ওই হামলায় ৩০০’র বেশি উগ্রবাদী নিহত হয়েছিল। কিন্তু পাকিস্তান বলে আসছিল, ওই হামলায় কেউ নিহত হয়নি। ওই হামলার পর দুই দেশ আকাশযুদ্ধে মুখোমুখি হয়। এতে পাকিস্তানি হামলায় ভারতের অন্তত একটি মিগ বিমান ভূপাতিত হয়, এর পাইলট পাকিস্তানের হাতে আটক হয়।

সাম্প্রতিক একটি শোয়ে বলা আগার মন্তব্যকে ওই ভিডিওয় তুলে ধরা হয়েছিল। সংবাদ সংস্থা দাবি করেছিল, ওই কূটনীতিবিদ জানিয়েছে, ২০১৯ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোররাতে খাইবার-পাখতুনখোয়ার বালাকোট শহরের অদূরে সন্ত্রাসীদের ডেরায় ফেলা ভারতীয় বিমানবাহিনীর মিরাজ-২০০০-এর ‘স্পাইস বোমা’ প্রাণ নিয়েছিল অন্তত ৩০০ জনের। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত সাবেক কূটনীতিকের ওই মন্তব্যের জেরে শোরগোল পড়ে যায়।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত জানা গেল, আঘার মন্তব্য বিকৃত করা হয়েছে। ওই সাবেক পাক কূটনীতিকের আসল নাম জাফর হিলালি। তিনি বলেছিলেন, ‘ভারত যা করেছিল, তা যুদ্ধের সামিল। সীমানা লঙ্ঘন করে অন্তত ৩০০ জনকে খুন করার উদ্দেশ্য ছিল তাদের। কিন্তু উর্দু মন্তব্যে শব্দ বদলে তৈরি ভুয়া ভিডিওয় বদলে দেয়া হয় মানেটাই। জাফর উচ্চারিত ‘মারনা’ শব্দটিকে প্রচারিত ভিডিওয় ‘মারা’ করে দেয়া হয়েছিল বলে ‘সত্যতা যাচাইকারী’ একটি রিপোর্টে জানা গিয়েছে। পাকিস্তান সংবাদমাধ্যমের একাংশও সোমবার জাফরকে উদ্ধৃত করে এই দাবি জানিয়েছে। জাফর সোশ্যাল মিডিয়ায় তার আসল মন্তব্যের ভিডিয়োটি পোস্টও করেছেন।

Back to top button