আন্তর্জাতিক

পাঞ্জাবের গভর্নরকে সরিয়ে দিলেন ইমরান খান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের গভর্নর চৌধুরী সারওয়ারকে তার পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে দেশটির পার্লামেন্টে অনাস্থা ভোটের মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে তাকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিলো ক্ষমতাসীন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সরকার।

এদিকে ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবে ভোটাভুটির পাশাপাশি রোববার (৩ এপ্রিল) পাঞ্জাব প্রদেশের নতুন মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচনেরও কথা রয়েছে। রোববার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাঞ্জাব প্রদেশের গভর্নরের পদ থেকে চৌধুরী সারওয়ারকে বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত রোববার সকালে পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী একটি টুইট বার্তায় ঘোষণা করেন।

সেসময় ফাওয়াদ বলেন, পাঞ্জাবের নতুন গভর্নরের নাম পরে ঘোষণা করা হবে। তার ভাষায়, ‘ততদিন পর্যন্ত, সংবিধান অনুযায়ী ডেপুটি স্পিকার ভারপ্রাপ্ত গভর্নর হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন।’

কয়েকটি সূত্রের বরাত দিয়ে এক্সপ্রেস ট্রিবিউন বলছে, পাঞ্জাবের আইনসভার স্পিকার পারভেজ এলাহির অভিযোগের ভিত্তিতে গভর্নরকে অপসারণ করা হয়েছে। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচনের ক্ষেত্রে গভর্নর সারওয়ার আলিম খান গ্রুপকে সমর্থন দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছিলেন এলাহি। মূলত মুখ্যমন্ত্রী পদে এলাহির বিরুদ্ধে পিএমএল-এন’র হামজা শেহবাজকে সমর্থন করছে আলিম খান গ্রুপ।

উল্লেখ্য, রোববার পাকিস্তানের পার্লামেন্টে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাবে ভোটাভুটি হওয়ার কথা রয়েছে। যদি বিরোধী দল জয়ী হয়, তবে নওয়াজ শরীফের ভাই শাহবাজ শরীফ প্রধানমন্ত্রী হতে পারেন।

অবশ্য ইমরানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ ইতোমধ্যেই পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হয়েছে। ৩৪২ সদস্যের জাতীয় পরিষদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের জন্য ইমরান খানের প্রয়োজন ১৭২টি ভোট। তবে কেবল বিরোধীরাই নয় নিজের দলের একাধিক সদস্যও অনাস্থা প্রস্তাবে ইমরানের বিরুদ্ধে ভোট দিতে পারেন বলে শোনা যাচ্ছে।

 

Back to top button