ইসলামইসলাম শিক্ষাইসলামিক শিক্ষাজাতীয়রাজনীতি

উগ্রবাদী মৌলবাদী হিন্দুত্ববাদীদের রাষ্ট্রদ্রোহী হিসেবে গ্রেফতার করতে হবে-ওলামা লীগ

ষ্টাফ রিপোর্টার : ওলামা লীগ নেতৃবৃন্দ ভ্যাকসিন হিরোসহ মোট ৪০টি আন্তর্জাতিক পুরস্কারের ভূষিত বিশ্বের শীর্ষ নেতৃত্বের তালিকায় দ্বিতীয় স্থান অধিকারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্যাসিনো ও জুয়া এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করায় আন্তরিক অভিনন্দন জানান। আজ জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক মানববন্ধনে বক্তারা এসব কথা বলেন।

বক্তারা বলেন, ইসলামবিদ্বেষী ও নাস্তিকদের মুক্তমনা ব্লগ, ইষ্টিশন ব্লগ, ধর্মকারী ব্লগগুলো এদেশে এখনো তীব্র ইসলামবিদ্বেষ ছড়াচ্ছে। নাস্তিকদের পৃষ্ঠপোষকতা করছে। অথচ পুলিশ, র‌্যাব, বিটিআরসি তাদের বিরুদ্ধে কোনো মামলা দেয়নি, কোনো ব্যবস্থাও নেয়নি। এর মাধ্যমে সরকারের বিরুদ্ধে ধর্মপ্রাণদের ক্ষেপিয়ে দেয়ার তৎপরতা চালানো হচ্ছে। নাঊযুবিল্লাহ!

তাই অবিলম্বে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার, হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের এবং মহাসম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের বিন্দু থেকে বিন্দুতম অবমাননা করলে বা মানহানীকর বক্তব্য, লেখা, প্রকাশ ও প্রচার করলে তাৎক্ষণিক মৃত্যুদন্ডের বিধান করতে হবে।

বক্তারা বলেন, বর্তমানে দেশে শিশু-কিশোররাও পর্নোগ্রাফিতে ভয়ঙ্কর আশক্ত। সারা দেশে হাজার হাজার সন্ত্রাসী কিশোর গ্যাংদের অস্তিত্ব ধরা পড়ছে। মারাত্মকহারে বেড়ে চলছে খুন-ধর্ষণ। অন্যদিকে দুর্নীতি, জুয়ায় সয়লাব সারাদেশ। পাশাপাশি দায়িত্বহীনতা ভেজাল, মজুদদারী, অনিয়ম আর বিশৃঙ্খলায় বিপর্যস্থ সারাদেশ ও জনগণ। অথচ ৯৮ ভাগ মুসলমানের দেশে এমনটি হওয়ার কথা ছিলনা। এর পেছনে একমাত্র কারণ মুসলমান তাদের হযরত নবী ও রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং মহামহিম, মহাপবিত্র আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালামগণ উনাদের মহিমান্বিত, মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র জীবনী মুবারক ও আদর্শ মুবারক জানেনা। নাঊযুবিল্লাহ! পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “নিশ্চয়ই তোমাদের রসূল নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মধ্যে রয়েছে সর্বোত্তম আদর্শ মুবারক। কাজেই আজকের আদর্শহীন, বিধ্বস্ত সমাজকে বাঁচাতে হলে শিক্ষাক্রমের সব শ্রেনীর পাঠ্যপুস্তকে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার জীবনী মুবারক অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।

বক্তারা বলেন, ভারতে উগ্রবাদী, মৌলবাদী হিন্দুরা গো-রক্ষার নামে গত ৩ বছরে হাজার হাজার মুসলমান হত্যা করেছে। মুসলমানদের পিটিয়ে হত্যা করেছে। মুসলমান মেয়েদের পর্দা পালনে বাধা দিয়েছে। কাস্মীরে লাখ লাখ মা-বোনদের ধর্ষণ করেছে। পুরুষদের হত্যা করেছে। অথচ বাংলাদেশে তারা রামরাজত্ব চালাতে চাইছে। দুরভিসন্ধিমূলকভাবে নিজেরা মূর্তি ভেঙ্গে মুসলমানদের উপর দোষ চাপাচ্ছে। সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে চাইছে। রানাদাশ, প্রিয়া সাহা, গোবিন্দ প্রামাণিক, রবীন্দ্র ঘোষ দেশে বিদেশে মুসলমান ও বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন করছে। ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা জোরদার প্রশ্ন তুলছেন যে ভারতে যদি মুসলমানরা তাদের ধর্মীয় অধিকার না পায় তাহলে বাংলাদেশে উগ্রবাদী, মৌলবাদী হিন্দুরা কীভাবে তাদের অযাচিত ধর্মীয় অধিকার চাইতে পারে। কাজেই অবিলম্বে সব জায়গা থেকে উগ্রবাদী, মৌলবাদী হিন্দুত্ববাদীদের প্রতিহত করতে হবে।

সমাবেশ ও মানবন্ধনে সমন্বয় করেন, বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগের সভাপতি- পীরজাদা, পীর, বীর মুক্তিযোদ্ধা, বর্ষীয়ান বিপ্লবী জননেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্জ মাওলানা মুহম্মদ আখতার হুসাইন বুখারী, (পীর সাহেব, টাঙ্গাইল)। বক্তব্য রাখেন- সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্জ কাজী মাওলানা মুহম্মদ আবুল হাসান শেখ শরীয়তপুরী, সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদের সভাপতি- আলহাজ্জ হাফেজ মাওলানা মুহম্মদ আব্দুস সাত্তার, সহ সভাপতি- মাওলানা মুহম্মদ শোয়েব আহমেদ গোপালগঞ্জী, সাংগঠনিক সম্পাদক- হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল জলিল, মাওলানা মুহম্মদ শওকত আলী শেখ ছিলিমপুরী, দপ্তর সম্পাদক- বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ, লায়ন আলহাজ্জ মাওলানা মুহম্মদ আবু বকর সিদ্দিক, আলহাজ্জ মাওলানা মুহম্মদ মুজিবুর রহমান আল মাদানী, হাফেজ ক্বারী মুহম্মদ শাহ আলম ফরাজী, হাফেজ মুহম্মদ আব্দুল বারী, কারী মাওলানা মুহম্মদ আসাদুজ্জামান আল কাদেরী, আলহাজ মুহম্মদ খোরশেদ আলম রেজভী, হাফেজ মাওলানা মুহম্মদ আল আমীন, আলহাজ্জ মাওলানা রফিকুল ইসলাম সিদ্দীকি আল কুরাইশি, মাওলানা মুহম্মদ আব্দুর রব-সা:সম্পাদক শ্রীনগর উপজেলা ওলামা লীগ, মাওলানা মুহম্মদ মাহবুব আলম, প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদ চেয়ারম্যান- আলহাজ্জ হাফেজ মাওলানা মুহম্মদ আব্দুস সাত্তার। মিছিল শেষে শহীদ বঙ্গবন্ধুর রূহের মাগফিরাত কামনা করে ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হায়াতে তৈয়বার জন্য দোয়া মোনাজাত করেন- আলহাজ্জ কাজী মাওলানা মুহম্মদ আবুল হাসান শেখ শরীয়তপুরী।

 

Tags

Related Articles

Back to top button
Close