অজানা তথ্য

বিশ্বের সবচেয়ে বড় মৌমাছি!

নিউজ ডেস্ক:অবশেষে খোঁজ মিলল পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মৌমাছির। ইন্দোনেশিয়ার একটি দূরবর্তী অঞ্চলে পুনরাবিষ্কৃত হয়েছে এ মৌমাছি। ‘উড়ন্ত বুলডগ’ নামে পরিচিত এই দৈত্যাকার মৌমাছি। সর্বশেষ ৪০ বছর আগে এ মৌমাছি দেখা গিয়েছিল। একটি ‘উড়ন্ত বুলডগ’ এর আকার একজন প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তির বুড়ো আঙুলের সমান।
বিশ্ব বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে বলা হয়েছে, ব্রিটিশ প্রকৃতিবিদ অ্যালফ্রেড রাসেল ওয়ালেস ১৯ শতকে এ দৈত্যাকার মৌমাছিটি আবিষ্কার করেন এবং নাম দেন ‘উড়ন্ত বুলডগ’ (flying bulldog)। মৌমাছি ফটোগ্রাফার বিশেষজ্ঞ ক্লে বোল্ট এই মৌমাছিটির ছবি তুলেছেন। তার মতে, জীবন্ত এ বিশাল মৌমাছি কতটা সুন্দর, এর বিশাল ডানার আওয়াজ কতটা অসাধারণ সেসব প্রত্যক্ষ করতে পারাটাই দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা।
উত্তর মোলুক্কাসের ইন্দোনেশিয়ান দ্বীপ অঞ্চলে থাকা এ মৌমাছির পুরো নাম মেগাচাইল প্লুটো। এই মৌমাছি তার বিশাল শুঁড় দিয়ে ছত্রাক থেকে বাসাকে রক্ষা করার জন্য চটচটে রেজিন সংগ্রহ করে। বর্তমানে আইইউসিএনের লাল তালিকায় এ মৌমাছিকে ‘বিপন্ন’ তালিকায় রাখা হয়েছে। এদের সংখ্যা যে কম তা নয়। কিন্তু প্রান্তিক দুর্গম অঞ্চলে পাওয়া যায় বলে সেখানে পৌঁছে এদের নিয়ে গবেষণা করা বা এদের দেখভাল করা কঠিন হয়ে পড়ে।
প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের এন্টোমোলোজিস্ট এলি ওয়াইম্যান এ সম্পর্কে বলেন, ‘আমি আশা করি, এই পুনরাবিষ্কার ভবিষ্যতের গবেষণাকে সমৃদ্ধ করবে, যা আমাদের এই অনন্য মৌমাছিটির ইতিহাস সম্পর্কে আরও গভীরভাবে জানতে সাহায্য করবে। এর পাশাপাশি এর বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষা করতে ভবিষ্যৎ প্রচেষ্টাকেও সমৃদ্ধ করবে।

Back to top button
Close
Close