অর্থ-বাণিজ্য

সূচক-লেনদেন কমে সপ্তাহ শেষ

নিজস্ব প্রতিবেদক: সপ্তাহের প্রথম তিন কার্যদিবস শেয়ারবাজার ঊর্ধ্বমুখী থাকলেও সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্যসূচক কমেছে। সেই সঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ।

সূচকের পতনের পাশাপাশি এদিনও লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। তবে ডিএসইতে যে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে, কমেছে তার থেকে বেশি। ফলে সূচকের কিছুটা পতন হয়েছে।

লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের কার্যদিবসের তুলনায় ২ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯৮৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ১ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৩৩৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ ২ পয়েন্ট কমে ৯২২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
ডিএসইতে লেনদেন অংশ নেয়া ২৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৩৬টির। আর ২১৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৮১ কোটি ১৮ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ৫৫৫ কোটি ৭১ লাখ টাকা। এ হিসাবে আগের কার্যদিবসের তুলনায় লেনদেন কমেছে ৪৭৪ কোটি ৫৩ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে আর বেক্সিমকো ফার্মার শেয়ার। কোম্পানিটির ১০ কোটি ৯৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস ৭ কোটি ১৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ৪ কোটি ৬০ লাখ টাকার লেনদেনের মাধ্যমে এর পরের স্থানে রয়েছে ওয়াটা কেমিক্যাল।

এ ছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস, গ্লাস্কস্মিথকলাইন, সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালস, যমুনা ব্যাংক, এমজেএল বিডি, ফার্মা এইড এবং আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই কমেছে ১১ পয়েন্ট। লেনদেন হয়েছে ২ কোটি ৩২ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেয়া ১২৪ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ১৮টির, কমেছে ২৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৭৯টির।

Back to top button
Close
Close