আইন-আদালত

মাদ্রাসাছাত্রীর সম্ভ্রমহরণ, ৫ আসামীর মৃত্যুদন্ড

টাঙ্গাইল সংবাদদাতা: টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে আট বছর আগে এক মাদরাসাছাত্রীকে অপহরণের পর গণসম্ভ্রমহরণের দায়ে পাঁচজনের মৃত্যুদন্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমীন এ রায় দেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধন করে ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদন্ড করার পর ধর্ষণ মামলায় এটিই প্রথম মৃত্যুদন্ডের রায়। মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্তরা হলো-সাগর চন্দ্র, সুজন মনি ঋষি, রাজন, সঞ্জিত ও গোপী চন্দ্র।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট নাসিমুল আকতার বলেন, সালের ১৫ জানুয়ারি ভূঞাপুর উপজেলার সালদাইর ব্রিজ এলাকা থেকে ওই ছাত্রীকে অপহরণ করে সাগর চন্দ্র।

তাকে নিয়ে যায় মধুপুরের অপর আসামি রাজনের বাড়িতে। সেখানে দুইদিন আটকে রাখার পর ওই এলাকার এক নদীর পাড়ে নিয়ে ১৮ জানুয়ারি দিবাগত রাতে সংঘবদ্ধ হয়ে ওই মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণ করে তারা। এরপর জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাকে সেখানে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় তারা। পরে বেলা বাড়ার পর ওই ছাত্রীর জ্ঞান ফিরে এলে সে তার ভাইকে ফোন দেয়। তার ভাই মধুপুর থেকে তাকে উদ্ধার করে ভূঞাপুর থানায় এনে পাঁচজনের নামে মামলা করে।

অ্যাডভোকেট নাসিমুল আকতার বলেন, রায় ঘোষণার সময় সঞ্জিত ও গোপী আদালতে উপস্থিত ছিলো। বাকি তিন আসামি সাগর চন্দ্র, সুজন মনি ঋষি ও রাজন জামিনে বের হয়ে পলাতক রয়েছে। এ মামলায় ম্যাজিস্ট্রেট, চিকিৎসক, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও মামলার বাদী ওই ছাত্রীসহ মোট ১০ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে গতকাল রায় দেয় আদালত।

Back to top button
Close
Close