জাতীয়শিক্ষা

৩ হাজার বিদ্যালয় সংস্কারে বরাদ্দ ৯০ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের বিভিন্ন স্থানের তিন হাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বড় ধরনের সংস্কার কাজ শুরু হতে হচ্ছে। এ বাবদ ৯০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে এক হাজার ৮৯৭টি বিদ্যালয়ের সংস্কারের জন্য প্রাথমিকভাবে অনুমোদন দিয়েছে মাঠ কর্মকর্তারা। প্রতিটিতে তিন থেকে সাত লাখ টাকা ব্যয়ে ধাপে ধাপে উন্নয়ন কাজ শেষ করা হবে বলে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, চতুর্থ প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচির (পিইডিপি৪) আওতায় ২০২০-২১ অর্থবছরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বড় ধরনের মেরামত সংস্থান রাখা হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে উপজেলাওয়ারি বড় ধরনের মেরামতযোগ্য বিদ্যালয়ের অগ্রাধিকারভিত্তিক তালিকা পাঠানোর জন্য সব উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এবং প্রাথমিক জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা, উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) এবং সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের সহায়তায় অগ্রাধিকার তালিকা প্রণয়ন করে উপজেলা শিক্ষা কমিটির অনুমোদন সাপেক্ষে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের মাধ্যমে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরে পাঠানো হয়। মাঠ পর্যায়ের চাহিদা অনুযায়ী বিদ্যালয়প্রতি বরাদ্দ তিন থেকে সাত লাখ টাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ রেখে এক হাজার ৮৯৭টি বিদ্যালয়ের তালিকা চূড়ান্ত অনুমোদনের লক্ষ্যে একটি প্রাথমিক তালিকা প্রণয়ন করা হয়।

সেই তালিকা থেকে দৈবচয়নের ভিত্তিতে ২৯৮টি বিদ্যালয় অধিদফতরের পরিচালকরা মাঠ পর্যায়ের বিভিন্ন কর্মকর্তারা সরেজমিন পরিদর্শন করে বিদ্যালয়গুলোতে বড় ধরনের মেরামতের লক্ষ্যে প্রস্তাবিত চাহিদা যাচাইক্রমে বরাদ্দ প্রদানের যৌক্তিকতা বিষয়ে সুস্পষ্ট মতামত প্রদানের জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

পরিদর্শন প্রতিবেদনে বলা হয়, পরিদর্শনের জন্য নির্ধারিত বিদ্যালয়ের সংখ্যা ২৯৮টি। তার মধ্যে প্রতিবেদন পাওয়া বিদ্যালয়ের সংখ্যা ২৭০টি। প্রাক্কলনের যৌক্তিকতা আছে ২১২টির, যৌক্তিকতা পাওয়া যায়নি ৫৮টি বিদ্যালয়ের।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেন, পিইডিপি৪-এর আওতায় দেশের বিভিন্ন স্থানে নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত তিন হাজার বিদ্যালয়ে বড় ধরনের সংস্কার কাজ করা হবে। মাঠ কর্মকর্তাদের এজন্য তালিকা তৈরি করে অধিদফতরে পাঠাতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, অধিদফতর থেকে যাচাই-বাছাই শেষ করে সেই তালিকা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। প্রথম ধাপে চূড়ান্ত অনুমোদন হওয়া ২১২টি বিদ্যালয়ের সংস্কার কাজ করা হবে। এ বাবদ ১২ কোটি টাকা ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

Back to top button