আন্তর্জাতিক

আফগানিস্তানে নতুন সরকার নিয়ে উদ্বেগে যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানে সদ্য গঠন হওয়া তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে উদ্বেগে আছে যুক্তরাষ্ট্র। উদ্বেগের প্রধান কারণ- নতুন সরকারে এমন একাধিক ব্যক্তি আছে, যারা মার্কিন বাহিনীর ওপর হামলার সঙ্গে সরাসরি যুক্ত বা নির্দেশদাতা।

ম এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘আফগানিস্তানে নতুন সরকার গঠনের ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র উদ্বিগ্ন। কারণ, এই সরকারের বিভিন্ন পদে যাদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছে, তারা হয় তালেবান, নয়তো তাদের ঘনিষ্ঠ মিত্র সংগঠনসমূহের প্রতিনিধি এবং মন্ত্রীসভার কোনো পদে নারীদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।’

‘আমাদের উদ্বেগের আর একটি কারণ হলো- আফগানিস্তানে সদ্য গঠিত হওয়া সরকারে এমন কয়েকজন ব্যক্তি আছেন, যারা ইতপূর্বে দেশটিতে মার্কিন বাহিনীর ওপর হামলার সঙ্গে সরাসরি যুক্ত। তাদের নির্দেশেই ওই হামলাগুলো হয়েছিল।’

‘তালেবান বাহিনী এর আগে আমাদের কথা দিয়েছিল, আফগানিস্তানের ভূমি অন্য কোনো দেশে সন্ত্রাসবাদ ছড়ানোর কাজে ব্যবহৃত হবে না। আমরা আগেও বলেছি, আবারও বলছি- যুক্তরাষ্ট্র তালেবানদের কাজ দেখেই তাদের বিচার করবে, তাদের কথা বা মৌখিক প্রতিশ্রুতি দিয়ে নয়।’

‘আর একটি সতর্কবার্তা আমরা তাদের দিতে চাই- বিশ্ব নিবিড়ভাবে আফগানিস্তানের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে।’

২০০১ সালে মার্কিন ন্যাটো অভিযানে ক্ষমতাচ্যুত তালেবান ২০ বছর পর ফের সরকারগঠন করল আফগানিস্তানে। সরকার গঠনের তিন সপ্তাহ আগে, গত ১৫ আগস্ট কাবুল দখল করে তালেবান।

মঙ্গলবার আফগানিস্তানকে ‘ইসলামিক আমিরাত’ নামে ঘোষণা করেছে তালেবান এবং দেশটির বর্তমান সরকারপ্রধান আখুন্দজাদা ঘোষণা করেছেন, এখন থেকে আফগানিস্তানের সরকারি শাসনব্যবস্থা ও জনজীবন সম্পূর্ণভাবে ইসলামি শরিয়া অনুসারে চলবে।

Back to top button