রাজনীতি

শেখ হাসিনা ছাড়া আর কোনো নেতা নেই -প্রতিমন্ত্রী পলক

নাটোর সংবাদদাতা: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী এড. জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, দুই বছর করোনার কারণে এবং তার পর পরই রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের জন্য বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। এজন্য সবাইকে ধৈর্য্য ধরতে হবে, আরও এক-দুই বছর সময় লাগবে পরিস্থিতি উত্তরণের জন্য। একই কারণে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যও বৃদ্ধি পেয়েছে। এজন্য সকলকে সাশ্রয়ী এবং সহনশীল আচরণ করার আহবান জানান তিনি। তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া আর কোনো নেতা নেই, যিনি এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে পারেন। কোনো অপপ্রচারে বিভ্রান্ত হওয়া যাবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতেই দেশ ও দেশের মানুষ নিরাপদ।

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে আবারও উন্নয়নের প্রতীক নৌকায় ভোট দিতে হবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ মানুষের সেবক হিসেবে কাজ করে, সকল প্রতিশ্রুতি পালন করে। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে দেশে শতভাগ বিদ্যুৎ, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, অবকাঠামোগত উন্নয়নসহ সকল ক্ষেত্রে প্রাণ চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। শুক্রবার (৩০ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় নাটোরের সিংড়ায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণকালে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন চায়না রেলওয়ে আন্তর্জাতিক কোম্পানি লিমিটেডের প্রধান প্রতিনিধি জাং জিয়াওলিয়াং।

পরে মন্ত্রী সিংড়া উপ-শহরের ‘বায়তুন নেওয়াজ জামে মসজিদ’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বলেন,দেখতে দেখতে ১৪টি বছর অতিবাহিত হলো। মাত্র ২৮বছর বয়সে সিংড়া উপজেলার ৫লক্ষাধিক মানুষের দায়িত্ব নিয়ে কাজ শুরু করি। এই অল্প সময়ের মধ্যে উপজেলার প্রায় প্রতিটি মসজিদ-মাদ্রাসা সহ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে সহযোগিতা করেছি। এছাড়াও নতুন নতুন ব্রিজ-কালভাট ও রাস্তা-ঘাট নিমার্ণ করা হয়েছে। নামাজ পূর্ব বয়ানে দমদমা আল জামিয়াতুল মাদ্রাসার মহ্তামিম আলহাজ¦ হোসাইন আহমদ ‘বায়তুন নেওয়াজ জামে মসজিদের বয়ানে বলেছেন,গুনাহ্ না করে,যিনি সওয়াব আদায় করেন তিনি উত্তম। আর যিনি ফজর নামাজের পর যোহর, আসর, মাগরিব এবং এশা’র নামাজ নিয়মিত আদায় করেন তিনি জান্নাতী।

সিংড়া পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ‘বায়তুন নেওয়াজ জামে মসজিদ’ এর সভাপতি মো.সাজ্জাদ হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন,সিংড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র আলহাজ¦ জান্নাতুল ফেরদৌস ও অত্র মসজিদের ইমাম আলহাজ¦ মুফতি আলী আহ্সান।

মসজিদটি নিমার্ণে ২১লক্ষ টাকা এবং প্রায় সাড়ে ৭শতাংস জমি দান করেছেন মসজিদ কমিটির সভাপতি সাজ্জাদ হোসেন।

Back to top button