আন্তর্জাতিক

প্রতিশ্রুত সামরিক সহায়তা না পাওয়া পর্যন্ত ইউক্রেনকে আক্রমণ বন্ধ রাখতে বলেছে যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কিয়েভ পূর্বে প্রতিশ্রুত অস্ত্র সরবরাহ না পাওয়া পর্যন্ত এবং ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর প্রশিক্ষণ না দেয়া পর্যন্ত মার্কিন কর্তৃপক্ষ ইউক্রেনকে একটি বড় আক্রমণ শুরু না করার পরামর্শ দিয়েছে, বার্তা সংস্থা রয়টার্স শুক্রবার বাইডেন প্রশাসনের একজন সিনিয়র কর্মকর্তাকে উল্লেখ করে জানিয়েছে।

এছাড়াও, ওই কর্মকর্তা জোর দিয়ে বলেছিলেন যে, ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ট্যাঙ্ক নিয়ে জার্মানির সাথে বিতর্কের মধ্যে এ সময়ে ইউক্রেনে আব্রামস ট্যাঙ্ক সরবরাহ না করার সিদ্ধান্তে অনড় ছিল।’ তিনি আরও বলেন যে, ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এ মুহূর্তে ইউক্রেনে আব্রামস ট্যাঙ্ক পাঠানোর পরিকল্পনা করছে না কারণ সেগুলি ব্যয়বহুল এবং রক্ষণাবেক্ষণ করা কঠিন।’

পেন্টাগনের মতে, ইউক্রেনে রাশিয়ার বিশেষ সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কিয়েভকে ২ হাজার ৪২০ কোটি ডলারের সামরিক সহায়তা বরাদ্দ করেছে। ৬ জানুয়ারি, ওয়াশিংটন ঘোষণা করেছে যে, তারা কিয়েভকে ৩০০ কোটি ডলারের বেশি সামরিক সহায়তার আরেকটি প্যাকেজ বরাদ্দ করবে। বিশেষ করে, প্যাকেজের মধ্যে থাকবে ট্র্যাক করা ব্র্যাডলি ফাইটিং ভেহিক্যাল এবং অটোমেটিক হাউইটজার। পূর্বে, জার্মানি ঘোষণা করেছিল যে, তারা ইউক্রেন মার্ডার পদাতিক যুদ্ধের যানবাহনে স্থানান্তর করতে চায়, যখন ফ্রান্স এএমএক্স-১০আরসি চাকাযুক্ত ট্যাঙ্ক পাঠাতে চলেছে।

বুধবার জার্মানির সুডয়েশ্চ জেইটুং সংবাদপত্র নিজস্ব সূত্রের বরাত দিয়ে বলেছে, দেশটির চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎস মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে ফোনালাপে বলেছেন যে, বার্লিন কিয়েভে লেপার্ড-২ ট্যাঙ্ক সরবরাহের অনুমোদন দিতে রাজি হবে যদি ওয়াশিংটন আব্রামসকে ইউক্রেনে পাঠায়। শুক্রবার, জার্মান মন্ত্রিপরিষদের একজন প্রতিনিধি এই তথ্য অস্বীকার করেছেন, উল্লেখ করেছেন যে, ইউক্রেনে জার্মান ট্যাঙ্কগুলি পুনরায় রপ্তানির জন্য কোনও সরকারী অনুরোধের বিষয়ে সরকারের কাছে কোনও তথ্য নেই৷ সূত্র: তাস।

Back to top button